Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সাধারণ তথ্য

অধিদপ্তরের দেয় সেবা ১। কলকারখানার নির্মাণ/সম্প্রসারিত নকশা অনুমোদন, রেজিষ্ট্রেশন ও লাইসেন্স প্রদান এবং নবায়ন করা; ২। বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ বাস্তবায়ন; ৩।শিল্প কারখানার মালিক/স্বত্ত্বাধিকারী কর্তৃক বাংলাদেশ শ্রম আইন এর আওতায় বিভিন্ন ধারা ও বিধি সম্পর্কে জিজ্ঞাসার জবাব প্রদান করা এবং শ্রম আইনের সংশ্লিষ্ট ধারা ও বিধি হতে অব্যাহতি দেওয়ার কাযর্ক্রম গ্রহন করা; ৪। শ্রমিক কর্তৃক আনীত অভিযোগ সমূহ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ; ৫। সামুদ্রিক বন্দর সমূহে কর্মরত শ্রমিকদের নিরাপত্তা ও কল্যাণ সংক্রান্ত আইন এবং এতদসংক্রান্ত সনদ জাহাজ কর্তৃপক্ষকে ইস্যু করা শ্রম আইন মোতাবেক সাধারণ নির্দেশিকা · নতুন কারখানা স্থাপনের ক্ষেত্রে স্থাপত্য নকশা যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদন করে নিন। · কারখানা রেজিষ্ট্রেশন ও লাইসেন্স নিশ্চিত করুন। এটা আপনার কারখানার সরকারী স্বীকৃতি। · প্রতিটি শ্রমিককে নিয়োগপত্র ও পরিচয়পত্র প্রদান করুন। · শ্রমিকদের সার্ভিস বই সংরক্ষণ করুন। · কল-কারখানায় সপ্তাহে ১(এক) দিন এবং দোকান ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে প্রতি সপ্তাহে অন্ততঃ ১+১/২ (দেড়) দিন ছুটি নিশ্চিত করুন। · শ্রম আইন মোতাবেক শ্রমিকদের নিম্নতম মজুরী নিশ্চিত করুন। · কোন শ্রমিকের যে মজুরী কাল সম্পর্কে তার মজুরী প্রদেয় হয় সেই কাল শেষ হওয়ার পরবর্তী ৭ (সাত) কর্ম দিবসের মধ্যে তার মজুরী পরিশোধ করতে হবে। · শিশু শ্রমিককে কারখানায় কাজ করাবেন না। · আপনার শ্রমিককে নৈমিত্তিক, পীড়া, উৎসব ও বার্ষিক ছুটি এবং মহিলা শ্রমিকদের প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রসূতি কল্যাণ ছুটি ও সুবিধা প্রদান করুন। · কাজ চলাকালে কারখানার বহির্গমন পথসহ সকল দরজা-জানালা খোলা রাখুন। · কারখানার সকল সিঁড়িপথ পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ও চলাচলে বাধামুক্ত রাখুন। · বহুতল ভবনে স্থাপিত কারখানায় বিভিন্ন দুর্ঘটনা বিশেষ করে অগ্নিজনিত দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য বিকল্প সিঁড়িপথসহ বিকল্প বহির্গমন দরজার ব্যবস্থা রাখুন। প্রতিটি কক্ষে অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র সংরক্ষণ করুন। · মাসে অন্ততঃ ১ (এক) বার অগ্নিনির্বাপক মহড়া করুন। · ঝুঁকিপূর্ণ রাসায়নিক দ্রব্যে কর্মরত শ্রমিকদের মেডিকেল চেক-আপ করুন। · শ্রম আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে শ্রম আদালতে আইনের আশ্রয় নেওয়া যেতে পারে।